February 25, 2024

শিলিগুড়ি। কথায় আছে মাঘের শীত বাঘের গায়ে!আর সে প্রবাদই হলো সত্যি!মাঝ জানুয়ারিতে উত্তরবঙ্গের পারদ মাত্রা নামতেই হাড়হিম ঠাণ্ডা কাবু করেছে বেঙ্গল সাফারী পার্কের বন্যপ্রাণীদের। তবে বন্যপ্রাণীদের শীত কামড় বসানোর আগেই সমস্ত প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে বেঙ্গল সাফারী কর্তৃপক্ষ। রয়্যাল বেঙ্গল পরিবার থেকে হিমালয়ান ব্ল্যাক বিয়ার এমনকি বিদেশি পাখি শিলিগুড়ির অদূরে  শালুগাড়ার উত্তরবঙ্গ বন্যপ্রাণ উদ্যান সাফারির প্রানীদের হাড় কাঁপুনি শীতের হাত থেকে বাঁচাতে বাড়তি উষ্ণতা সঞ্চারে রাজশাহী আয়োজন সাফারি কর্তৃপক্ষের। কৃত্রিমভাবে উষ্ণতা সঞ্চারে রয়্যাল বেঙ্গল, হিমালয়ান ব্ল্যাক বিয়ারের পাশাপাশি সমস্ত এনক্লোজারে বসানো হয়েছে হিটার থেকে হট ব্লোয়ার। মাঝে মধ্যেই হিটার ও ব্লোয়ার চালিয়ে উষ্ণ রাখা হচ্ছে নাইট শেল্টারে রয়্যাল পরিবারের খুদে ব্রাঘ্র শাবকদের। বাড়তি উষ্ণতার ওম থেকে বাদ পড়ছে না মা রয়্যাল বেঙ্গল ও ১১সদস্যের রয়্যাল পরিবার। তার সঙ্গে বিশেষভাবে নজরে রাখা হয়েছে হিমালয়ান ব্ল্যাক বিয়ার ও তার ছোট্ট ভাল্লুক ছানাকে। সাফারী সূত্রে জানা গিয়েছে বন্যপ্রাণীদের সমস্ত এনক্লোজার মিলে মোট প্রায় ২৫ থেকে ৩০ টি হিটার ও হট এয়ার ব্লোয়ার রয়েছে।

প্রতিটি এনক্লোজারের নাইট শেল্টারে হিটার ও হট ব্লোয়ার রয়েছে। চলতি সপ্তাহে পারদ মাত্রা উত্তরবঙ্গ জুড়ে নেমে যাওয়ায় শীতের কামড় থেকে কিছুটা আরাম দিতে বন্যপ্রাণীদের এনক্লোজারে এই বন্দবস্ত। এনক্লোজারে নাইট শেল্টারের মেঝের ঠান্ডা আচ থেকে বন্যপ্রাণীদের বাঁচাতে রয়্যাল বেঙ্গল এনক্লোজারে প্লাই বোর্ড বিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। লেপার্ড ক্যাট সহ অন্যান্য বন্যপ্রাণীদের এনক্লোজারে কম্বল মেঝেতে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। শীতের হাত থেকে বাঁচাতে পাখীদের জন্য নেস্ট বক্স তৈরি করা হয়েছে। সম্প্রতি বেশ কিছু বিদেশী পাখিদের আনা হয়েছে সাফারিতে। বৃহস্পতিবার শিলিগুড়িতে হাড়হিম ঠান্ডা তার সঙ্গে রাতের অংশে শৈত্য প্রবাহ ও  কুয়াশা ইলশে গুড়ি বৃষ্টির মতো পড়তে শুরু করে। শীতের দাপট থেকে দেশ বিদেশের পাখিদের সুরক্ষা কবচ হিসেবে সাফারীতে এই প্লাই বোর্ডের ও বাঁশের নেস্ট বাক্স গুলি তৈরি করা হয়েছে। বদল আনা হয়েছে সাফারীর রয়্যাল বেঙ্গল পরিবারের ডায়েট চার্টেও।সাফারীর বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞদের তরফে জানা গিয়েছে শীতের রক্ষা কবচ হিসেবে বিশেষ ডায়েট চার্ট তৈরি করা হয়েছে। তাতে রয়্যাল বেঙ্গল বাঘেদের জন্য যেখানে নিয়মিত ৮-৯কেজি মাংস ধার্য ছিল। সেখানে নতুন ডায়েট চার্ট অনুসারে মাংসের পরিমাণ বাড়িয়ে ১০-১২কেজি করা হয়েছে। পাশাপাশি বন্যপ্রাণীদের খাবারে মাধ্যমে শরীরের উষ্ণতা বজিয়ে রাখতে উষ্ণ বিফ স্যুপ রাখা হয়েছে তাদের খাবারের তালিকায়। পাখিদের পানীয়র সঙ্গে মেশানো হচ্ছে কিছুটা মধু। এই বিষয়ে বেঙ্গল সাফারির ডিরেক্টর কমল সরকার জানান শীতের মরশুমে বন্যপ্রাণীদের শারীরিক সুস্থ্যতা ও তাদের স্বাচ্ছন্দ্যের উপর নজর দিয়ে যা যা করনীয় সমস্ত ব্যবস্থাই নেওয়া হয়েছে।

Content Protection by DMCA.com

You cannot copy content of this page