বিদেশিনীর সঙ্গে মধুচন্দ্রিমায় কাঁটিয়ে ফিরতি পথে ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে আটক হয়ে শ্রীঘরে নব দম্পতি। অভিযুক্ত দম্পত্তি মার্কিন নিবাসী স্ত্রী নয়না কালা পোউডেল, স্বামী নিমা তামাং। স্ত্রী নয়না কালা পোউডেল আমেরিকার বাসিন্দা। সুদূর মার্কিন মুলুক ইউএসএ থেকে এসে কালচিনি নিবাসী ৩৩বছর বয়সী যুবক নিমাকে বিবাহ করে বয়স ৪০এর বিদেশীনির।

 

শিলিগুড়ি। বিদেশিনীর সঙ্গে মধুচন্দ্রিমায় কাঁটিয়ে ফিরতি পথে ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে আটক হয়ে শ্রীঘরে নব দম্পতি। অভিযুক্ত দম্পত্তি মার্কিন নিবাসী স্ত্রী নয়না কালা পোউডেল, স্বামী নিমা তামাং। স্ত্রী নয়না কালা পোউডেল আমেরিকার বাসিন্দা। সুদূর মার্কিন মুলুক ইউএসএ থেকে এসে কালচিনি নিবাসী ৩৩বছর বয়সী যুবক নিমাকে বিবাহ করে বয়স ৪০এর বিদেশীনির। বিবাহ মঙ্গলে সম্পন্ন হলেও আইনি গেরোয় বাঁধ সাঁধলো মধুচন্দ্রিমা। নেপালে বেআইনী ভাবে মার্কিন বিদেশীনিকে নিয়ে মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে ফিরতি পথে ভারত নেপাল সীমান্তে এসএসবির হাতে আটক ইউএসএ-এর বাসিন্দা নাবালিকা ভাইঝি সমেত নব দম্পতি। ৭ই মে নেপালের কাঁকরভিটা থেকে ট্যাক্সিতে ভারতের উদ্দেশ্য ফেরার সময় খরিবাড়িবাড়ি পানিট্যাঙ্কি ভারত নেপাল সীমান্তে এসে পৌছায়। সেখানে ওই নব দম্পত্তি তার ও নাবালিকার পরিচয় পত্র যাচাই করতে গিয়ে খটকা বাঁধে এসএসবি জওয়ানদের। এরপরই এসএসবি তাদের আটক করে। তাদের কাছে ভারতের জাল আধার কার্ড বাজেয়াপ্ত করে এসএসবি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত বিদেশিনী জানান তিনি ইউএসএ থেকে কালকিনির ওই যুবককে বিবাহ করতে মার্চ মাসে ভারতে আসেন। তার ভারতে প্রবেশের বৈধ ভিসার মেয়াদ রয়েছে আরও বেশ কয়েকমাস। তার সঙ্গে এগারো বছর বয়সী নাবালিকা নিয়ে ভারতে এসেছিল সে। তারও বৈধ নথি রয়েছে। সম্প্রতি বেশ কয়েকদিন আগে নেপালে মধুচন্দ্রিমায় ওই নবদম্পতি নাবালিকাকে নিয়ে বেড়াতে গিয়েছিল। নেপালি ভারত নেপাল সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীর নজর এড়িয়েই প্রবেশ করে তারা। এরপরই এসএসবি বিষয়টি খড়িবাড়ি থানার পুলিশকে জানায়। খরিবাড়ি থানার পুলিশ এসএসবি জাল আধার কার্ড নিয়ে নেপাল থেকে বেআইনিভাবে ভারতে প্রবেশের দায়ে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। জাল কার্ড গুলিকেও বাজেয়াপ্ত করা হয়। খরিবাড়ি থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত মার্চ মাসে বিবাহের জন্য ইউএসএ-এর পেন্সিলভেনিয়ার বাসিন্দা। কালচিনির নয়ালাইনের চা বলয়ের যুবক নিমা তামাংকে বিবাহ করতেই এদেশে পাড়ি দেয় নাবালিকা আত্মীয়কে নিয়ে ভারতের মাটিতে উত্তরের ডুয়ার্সের চা বাগান এলাকায় পাড়ি দেয় সে। বিবাহ পরিবার পরিজন এবং এলাকার মানুষের উপস্থিতি ধুমধাম এর সঙ্গী হয়েছিল। পরবর্তীতে নেপালি কিছুদিন আগে ওই নব দম্পতি বেড়াতে যায়। সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীর নজর এড়িয়ে ভারত থেকে নেপালে প্রবেশ করলেও ফিরতি পথে এসএসবির হাতে জাল আধার কার্ড সমেত গ্রেপ্তার হয় অভিযুক্ত নব দম্পত্তি। স্বামী নিমা তামাং ভারতের বাসিন্দা হলেও তার বিদেশীনী স্ত্রীকে জাল আধার কার্ড তৈরিতে মদত দেয়। এই অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করা হলেও এগারো বছরের নাবালিকাকে পরিবারের হেফাজতে নিয়ে দ্রুত ইউএসএ-এর বৈধ পাসপোর্ট,ভিসা ও যাবতিয় নথি পেশের নির্দেশ দেওয়া হয়। বুধবার অভিযুক্ত নব দম্পতিকে শিলিগুড়ি আদালতে পেশ করা হয়। শিলিগুড়ি আদালতের সরকারি আইনজীবী সুশান্ত নিয়োগী জানান-অভিযুক্ত দম্পত্তিকে জাল আধার কার্ড তৈরীর দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ৪১৫,৪৬৫,৪৬৮,৪৭১ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত পাঁচ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে। ওই জাল আধার কার্ড কে বা কিভাবে তৈরি করা হয়েছিল তা খতিয়ে দেখছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

You cannot copy content of this page