পরিচিত হাসিমুখ নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে গণদেবতার সামনে হাজির হয়ে মনজয় টলি সুপারস্টার দেবের। দেবকে ঘিরে জনজোয়ারে ভাসলো শহর শিলিগুড়ি। কিশোর কিশোরীদের দল পরীক্ষার শেষ ঘণ্টার আগেই দেব কে দেখতে খাতা জমা দিয়ে ছুট! দেবের রোড শোতে বাড়ির ছাদ ব্যালকনি থেকে পুষ্প বৃষ্টি আম জনতার। উত্তরবঙ্গ থেকে অনেকগুলো সিট জিতবে শিলিগুড়ির বুকে চ্যালেঞ্জ- দেব-এর।

 

শিলিগুড়ি। পরিচিত হাসিমুখ নিয়ে নির্বাচনী প্রচারে গণদেবতার সামনে হাজির হয়ে মনজয় টলি সুপারস্টার দেবের। দেবকে ঘিরে জনজোয়ারে ভাসলো শহর শিলিগুড়ি।
উত্তরবঙ্গের এবারে ভালো ফল হবে। উত্তরবঙ্গ থেকে অনেকগুলো সিট জিতবে শিলিগুড়ির বুকে চ্যালেঞ্জ- দেব-এর। অভিনেতা তৃনমূল সাংসদ দেবকে ঘিরে বাঁধ ভাঙলো জনতার উচ্ছ্বাস। কাতারে কাতারে অগনিত ভক্ত অনুরাগির দলে দলে মরিয়া ছুট দেবের নির্বাচনী প্রচারের গাড়িকে ঘিরে! তপ্ত রোদেও পরিচিত হাসিমুখ নিয়ে মঙ্গলবার শিলিগুড়িতে জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রের তৃনমূল প্রার্থী নির্মল চন্দ্র রায়ের হয়ে প্রচার সারলেন দেব। এদিন কোচবিহারের কর্মসূচি সেরে তিনটে নাগাদ শিলিগুড়ির অদূরে জলপাইগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী নির্মল চন্দ্র বর্মনের সমর্থনে প্রচারে নামেন টলি জনপ্রিয় অভিনেতা স্টার সাংসদ দেব। হেলিপ্যাড গ্রাউন্ড থেকে নৌকা ঘাটের একটি হোটেলে হালকা লাঞ্চ সেরেই জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে প্রচারে নেমে পড়েন। এদিন তিনটে নাগাদ শিলিগুড়ি নৌকাঘাট থেকে হুট খোলা জিপে জলপাইগুড়ি প্রার্থীকে সঙ্গে নিয়ে প্রচারে রোড শো শুরু হয় অভিনেতা সাংসদ দেব তথা দীপক অধিকারির। জলপাইগুড়ি জেলার অন্তর্গত শিলিগুড়ি পুরনিগমের সংযুক্ত ওয়ার্ড গুলিতে পৌছায় দেবের রোড শো। হুট খোলা সুসজ্জিত প্রচারের জিপে দেবের সঙ্গে ছিলেন একদিকে প্রার্থী নির্মল চন্দ্র রায় অপরদিকে মেয়র গৌতম দেব। নৌকাঘাট থেকে উপচে পড়া ভিড়ের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় দেবের রোড শো। শুধু মুখ্য রাস্তা নয় কিছুটা পেড়িয়ে ৩১ নাম্বার ওয়ার্ডের শীতলা পাড়ার অলি গলি,সবজি বাজারে প্রচারে পৌঁছে যায় দেবের গাড়ি। নৌকাঘাট থেকে মুখ্য সড়ক অলিগলি সর্বত্র শহর শিলিগুড়িতে জনস্রোতে ভাসেন দেব। এদিন রোড শোয়ের মাঝে সংবাদমাধ্যমে কোনো বক্তব্য না রাখলেও বাগডোগরা বিমানবন্দরে দেব জানান- ভীষণভাবে সাড়া পেয়েছি উত্তরবঙ্গের সব জায়গায়। আত্মবিশ্বাসী কন্ঠে টলি সুপারস্টার দেবের বক্তব্য দুদিন ধরে জেলায় জেলায় ও চারটে রোড শো সব জায়গা থেকে মানুষের যে প্রতিক্রিয়া পেয়েছি সেটা খুবই পজিটিভ। যেভাবে মানুষের সমর্থন ও সাড়া পেয়েছি তাতে এবারে আমরা খুবই অপ্টিমিস্ট। উত্তরবঙ্গ থেকে এবারে অনেকগুলো সিট জিতবো। উত্তরবঙ্গে খুব ভালো ফল হবে। প্রার্থী থেকে দলের নেতা কর্মীরা সবাই প্রচুর পরিশ্রম করছে। মানুষের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছে। পাশাপাশি ঘাটাল নিয়ে তিনি বলেন- ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের মানুষ জানে দেব গত পাঁচ বছরে কি কাজ করেছে এবং আগামীতে কি কাজ করতে চলেছে। ঘাটালের মানুষের ওপর আমার বিশ্বাস রয়েছে। ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান এর কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন ১০ বছরের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে কিছু একটা করতে পারলাম যে আগামী ১০০বছর থেকে যাবে।অন্যদিকে এদিন শিলিগুড়ির রাস্তায় অসংখ্য মানুষ ভক্ত অনুরাগীদের উপচে পড়া ভিড় ঠেলে খুব শ্লথ গতিতে এগোতে হয় দেবের নির্বাচনী প্রচারের জিপকে।বিশাল পুলিশ বাহিনীর মোতায়েন থাকলেও অনুরাগীদের ভিড় সামাল দেওয়া ছিল যথেষ্টই চ্যালেঞ্জর। পরিক্ষার শেষ ঘন্টা পড়ার আগেই খাতা জমা দিয়ে চলে এসেছি বলতে শোনা যায় উচ্ছসিত কিশোর কিশোরি অনুরাগীদের দল। রাস্তায় কাতারে কাতারে ভক্ত অনুরাগীদের উপচে পড়া ভিড়ের পাশাপাশি বাড়ির ব্যালকনি, ছাদ থেকে পুষ্প বৃষ্টি করেন আমজনতা। শীতলা পাড়ায় টলি সুপার স্টার দেব ও নির্বাচনের তৃনমূল প্রার্থীকে উষ্ম অভ্যর্থনা জানাতে সাধারণ জনতা বাড়ীর ছাদ থেকে পুষ্প বৃষ্টি করেন। আবার কেউ ব্যালকনিতে তৃনমূলের পতাকা হাতে স্লোগান তুলে স্বাগত জানান। দেবও পরিচিত হাসিমুখ নিয়েই এক ঘণ্টার নির্বাচনী প্রচারের রোড শো থেকে ভক্ত অনুরাগিদের সঙ্গে কখনও হাত মিলিয়ে নেন, কখনও ছুঁয়ে যান ভক্তদের হাত। অগনিত অনুরাগীদের ফটোগ্রাফের সঙ্গে অটোগ্র্যাফ দুয়েরই আবদার বর্ষিত হয় দেবের কাছে।এদিন নিরাশ করেননি ভক্তদের দেব। ভক্তদের আবদারকে শিরোধার্য করে ফটোগ্রাফের সঙ্গে অটোগ্র্যাফও বিলিয়ে চলেন। হাসি মুখে রাস্তায় অগণিত মানুষের ভিড় ঠেলে দ্রুত পাইলটে না গিয়ে জনতার মাঝেই পায়ে হেটে রাস্তায় নেমে পড়েন। রীতিমতো উচ্ছ্বসিত জনতার ভিড়ের মাঝে চলে আসেন। ৩১নাম্বার ওয়ার্ডে শক্তিগড় এক ও তিন নম্বর রাস্তা পরিক্রমা করে টলি সুপার স্টার। তবে সফর রুট মাঝ পথেই কাটছাঁট করে ৩২ নম্বর ওয়ার্ড সুকান্তপল্লী মোড় থেকে হুড খোলা জিপ থেকে নেমে গাড়িতে সরাসরি বাগডোগরা বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন তারকা। তাকে ঘিরে জনপ্লাবনে কার্যত রাস্তা আটকে পড়ে।
মানুষের ভিড়ের মাঝে গাড়ি ঘুরিয়ে বাগডোগরা বিমানবন্দর মুখী যেতে বেশ কিছুটা সময় লেগে যায়। এদিনই কলকাতার উদ্দেশ্যে ফিরে যান ঘাটালের সুপার স্টার তৃনমূল সাংসদ দেব।

You cannot copy content of this page