শিলিগুড়িতে রহস্যজনকভাবে আত্মঘাতী বিএসএফ জওয়ানের। কাজের চাপে আত্মহত্যা করেছে সে অভিযোগ জওয়ানের দিদির।শিলিগুড়ি। শিলিগুড়িতে রহস্যজনকভাবে আত্মঘাতী বিএসএফ জওয়ানের। কাজের চাপে আত্মহত্যা করেছে সে অভিযোগ জওয়ানের দিদির। রবিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ি পুরো নিগমের ৪৬নাম্বার ওয়ার্ডে। জানা গিয়েছে প্রায় এক সপ্তাহ আগে নাগরাকাটা নিবাসী শৈবাল কৃষ্ণ দিদির বাড়ি শিলিগুড়িতে এসেছিল। শিলিগুড়ির চম্পাসারি সংলগ্ন এলাকায় একটি বাড়িতে স্বামী সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকেন তার দিদি। এদিন কাজের সুত্রে বাইরে গিয়েছিলেন তিনি। সে সময় মহিলার নাবালক ছেলে স্নানাগারে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় শৈবালের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পায়। আতঙ্কে চিৎকার করে ওঠে। খবর পৌঁছায় তার দিদির কাছে। মৃতের দিদির মন্তব্য তার ভাই বিএসএফ এ চাকরি করে। চিকিৎসা করাতে বেশ কিছুদিনের ছুটি নিয়েছিল। এক সপ্তাহ আগে চিকিৎসা করাতে শিলিগুড়িতে এসেছিল সে। চিকিৎসকের কাছেও যায়। বেশ কিছুদিন ধরেই কিছু সমস্যা দেখা দেয় তার কাজের ক্ষেত্রে। কাজের সমস্যা থেকেই এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে তার ভাই বলেই অভিযোগ মহিলার। মহিলা বলেন তার স্ত্রী পরিবার রয়েছে। তারা মালাবাজার থাকে। এদিন ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে প্রধান নগর থানার পুলিশ। দেহটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় বিষয়টি জানতে পেরেই ঘটনাস্থলে পৌঁছান ওয়ার্ড কাউন্সিলর দিলীপ বর্মন। তিনি বলেন বাড়ির মালিক এবং অন্যান্যদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি কিছু মানসিক সমস্যায় ভুগছিল ওই বিএসএফ জওয়ান।

 

You cannot copy content of this page